ভারতের নাগরিকতার জন্য কিভাবে আবেদন করবেন? জেনে নিন

How to apply for Indian citizenship in Bengali: ভারতের নাগরিকতার জন্য আবেদন পদ্ধতি ও প্রয়োজনীয় কাগজপত্র | আসুন জেনে নিন ভারতের নাগরিকতার জন্য কিভাবে আবেদন করবেন? এর জন্য কি করতে হবে? কোথায় ফর্ম জমা দেবেন।

কোন দেশে বসবাস করার জন্য সেই দেশের নাগরিক হওয়া টা খুবই গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। যে কোনো রকমের সমস্যার সমাধান করা যেতে পারে খুবই সহজভাবে। তার সাথে বসবাসের জন্য নিজের পরিচয় পত্র, কাগজপত্র তৈরি করার ক্ষেত্রে বিশেষভাবে সহযোগিতা করে এই নাগরিকতার প্রমাণপত্র।

ভারতের নাগরিকতার জন্য কিভাবে আবেদন করবেন? জেনে নিন
ভারতের নাগরিকতার জন্য কিভাবে আবেদন করবেন? জেনে নিন

ভারতীয় নাগরিকতা রেজিস্ট্রেশন অথবা প্রাকৃতিককরণ দ্বারা প্রাপ্ত করা যেতে পারে। ভারতীয় নাগরিক হওয়ার জন্য সঠিক প্রক্রিয়া আপনার রাষ্ট্রয়ত্ত এর উপর নির্ভর করে থাকে, যে আপনি ভারতীয় নাগরিক নাকি ভারতীয় নাগরিক নন।

ভারতের নাগরিকতা কে নিয়ন্ত্রিত করার জন্য আইন কি?

ভারতের সংবিধান সম্পূর্ণ দেশের জন্য একই রকম নাগরিকতা প্রদান করে থাকে। 1955 অনুসারে সংসদ দ্বারা অধিনিয়ম নাগরিকতা অধিনিয়ম ভারতীয় নাগরিকতা এর অধিগ্রহণ, ত্যাগ, সমাপ্তি, অভাব আর নির্ধারণ কে প্রভাবিত করে থাকে। অধিনিয়মে জন্ম ও বংশ রেজিস্ট্রেশন আর প্রাকৃতিককরণ দ্বারা ভারতীয় নাগরিকতা প্রাপ্ত করার গুরুত্ব রয়েছে।

এমন কোন তারিখ, যে তারিখ অনুসারে কোন ব্যাক্তি ভারতীয় নাগরিক হতে পারবেন ?

ভারতের নাগরিকতা জন্ম থেকে:

১) প্রত্যেক ব্যক্তির জন্ম 26. 01. 1950 অথবা এর পরে ভারতে হয়ে থাকে কিন্তু 01. 07. 1987 এর আগে সেই ব্যক্তির অথবা তার বাবা-মায়ের ভারতের নাগরিকতা আছে।

২) ভারতে 01. 07. 1987 থেকে 02. 12. 2004 এর মধ্যে যে সমস্ত ব্যক্তি জন্মগ্রহণ করবেন ভারতের নাগরিক হিসেবে গণ্য করা হবে এবং সেই ব্যক্তির জন্মের সময় তার বাবা-মায়ের যে কোনো একজন কে ভারতীয় নাগরিক হতে হবে।

৩) 02. 12. 2004 অথবা এর পরে ভারতে জন্ম নেওয়া প্রত্যেক ব্যাক্তি ভারতের নাগরিক হয়ে থাকবেন। তাছাড়া শর্ত অনুসারে তার বাবা-মা দুজনেই ভারতের নাগরিক হতে পারেন।

যার মধ্যে বাবা মা এর মধ্যে যে কোন একজন ভারতীয় নাগরিক হোক আর দ্বিতীয় যে কোনো একজন ওই সময় অবৈধ প্রবাসী না হয়ে থাকে তার জন্মের সময়।

ভারতের নাগরিকতা রেজিস্ট্রেশন:

রেজিস্ট্রেশনের মাধ্যমে ভারতের নাগরিকতা পঞ্জিকরণ অথবা রেজিস্ট্রেশন করা যেতে পারে:-

১) ভারতের যে কোন ব্যক্তি রেজিস্ট্রেশন এর জন্য আবেদন করার আগে সাত বছরের জন্য ভারতে সামান্য রূপে স্থায়ী বাসিন্দা হতে হবে।

২) ভারতের যে কোন ব্যাক্তি অবিবাহিত ভারতের বাইরের যে কোনো দেশ অথবা জায়গাতে সামান্য রূপে নিবাসী হয়ে থাকলে।

৩) এক ব্যক্তি যিনি ভারতের নাগরিক এর সাথে বিবাহিত হয়েছেন এবং রেজিস্ট্রেশন এর জন্য আবেদন করার আগে ৭ বছর পর্যন্ত ভারতের বাসিন্দা হতে হবে।

৪) এমন ব্যক্তিদের ছোট বাচ্চা যা কিনা ভারতের নাগরিক।

৫) পর্যাপ্ত বয়স আর ক্ষমতা ব্যাক্ত যার বাবা-মা ভারতের নাগরিক হিসাবে রেজিস্ট্রেশন করেছেন।

৬) পূর্ণ বয়স্ক ব্যক্তি আর সব ক্ষমতার একটি ব্যক্তি যার বাবা-মা এর মধ্যে যে কোন একজন প্রথমে স্বাধীন ভারতের নাগরিক ছিলেন। আর রেজিস্ট্রেশন এর জন্য আবেদন করার কিছুক্ষণ আগে এক বছর এর জন্য ভারতে বসবাস করছেন।

৭) পূর্ণবয়স্ক ব্যক্তি, ক্ষমতা সম্পন্ন ব্যক্তি যিনি  ভারতে বিদেশী নাগরিক হিসেবে ৫ বছর পর্যন্ত রেজিস্ট্রেশন করিয়েছেন আর রেজিস্ট্রেশন এর জন্য আবেদন করার আগে এক বছর ধরে ভারতে থাকছেন।

ভারতের নাগরিকতা প্রাকৃতিককরণ:

প্রাকৃতিককরন দ্বারা ভারতের নাগরিকতা একটি বিদেশি (অবৈধ প্রবাসী না হওয়ার কারণে) দ্বারা প্রাপ্ত করা যেতে পারে। যা কিনা ভারতে সাধারণত ১২ বছর ধরে বসবাস করছেন।

আবেদনের তারিখ থেকে ১২ মাস পর্যন্ত মিলিয়ে ১১ বছর পর্যন্ত। আর অধিনিয়ম 1955 এর তৃতীয় অনুসুচিত এ নির্দিষ্ট, অন্য যোগ্যতাকে পূরন করে থাকে।

নাগরিকতার নির্ধারণ করার প্রক্রিয়া কি?

১) ভারতের যেকোনো নাগরিক দ্বারা যে কোনো অন্য দেশে নাগরিকতা প্রাপ্ত করার প্রক্রিয়া সম্বন্ধে যা কিছু প্রশ্ন থাকবে সেটা কেন্দ্র সরকার দ্বারা নির্ধারিত করা হবে।

২) কোন ভারতীয় নাগরিক দ্বারা কোন অন্য দেশে নাগরিকতা প্রাপ্ত করেন, করার বিষয় সম্বন্ধিত যেকোনো প্রশ্ন কেন্দ্র সরকার ওই প্রশ্নের সম্বন্ধে অথবা এই সম্বন্ধিত যেকোনো মামলার ক্ষেত্রে সেই দেশে এখানকার দূতাবাস কে ওই দেশের সরকার আর ও অন্যান্য বিষয়ের অনুসরণে প্রাপ্ত করতে পারে রিপোর্ট অথবা নোটিশ এর উপর নির্ভর করে।

৩) এই তথ্য ভারতের কোন নাগরিক যে কোন তারিখে কোন অন্য দেশের সরকার থেকে পাসপোর্ট প্রাপ্ত করে থাকেন, ওই তারিখের আগে স্বইচ্ছায় ওই দেশে নাগরিকতা পাওয়ার জন্য একটি প্রমাণপত্র হয়ে যাবে।

৪) এটা নির্ধারিত করা যেতে পারে, ভারতের নাগরিক নিজের ইচ্ছায় অথবা স্বইচ্ছায় কোন অন্য দেশের নাগরিকতা প্রাপ্ত করেছেন না করেন নি। কেন্দ্র সরকার যে সমস্ত বিষয় গুলোর উপরে এর বিচার করতে পারেন সেগুলি হল:- 

নাগরিকতা কিভাবে সমাপ্ত করা যেতে পারে?

ভারতের যেকোনো নাগরিক নাগরিকতার রেজিস্ট্রেশন অথবা নিজের ইচ্ছায় প্রাপ্ত করে থাকেন বা 26 জানুয়ারি 1950 এই অধিনিয়ম অনুসারে এর মধ্যে যে কোন সময় নিজের ইচ্ছায় কোন অন্য দেশের নাগরিকতা প্রাপ্ত করে থাকেন, এমন অধিগ্রহণের ওপর।

যেমন ধরুন যে কোন মামলা অথবা বিষয় হতে হবে, যেখানে ভারতের নাগরিক হওয়া থেকে বিরত থাকতে হবে অথবা ভারতের নাগরিক হওয়ার সুবিধা বন্ধ হয়ে গিয়ে অন্য কোন দেশের নাগরিক হতে হবে।

ভারতীয় নাগরিকতা পাওয়ার জন্য আবেদন করার আগে অবশ্যই গুরুত্বপূর্ণ কাগজপত্র অথবা ডকুমেন্টস গুলি কি কি?

  • বাবা-মায়ের জন্মতরিখের প্রমাণপত্র
  • ভারতীয় পাসপোর্ট অথবা প্রত্যেকের বার্থ সার্টিফিকেট।
  • নাগরিকতা নিয়ম 1955 অর্থাৎ কালেক্টর ডি এম টিসি নির্দিষ্ট কার্যালয়ে সমক্ষ এ প্রস্তুত করা প্রমানপত্র এবং শপথপত্র।
  • টোটাল অ্যামাউন্ট এর ব্যাংক চালান এর প্রতি 500 টাকা আর ভারতীয় স্টেট ব্যাংকে হেড নম্বর “0070”
  • অন্যান্য প্রশাসনিক সেবা, অন্যান্য সুবিধা রশিদ এর অনুসারী না হলে অধিনিয়ম অনুযায়ী জমা করা সংসদপত্র।

তো এইভাবে যেকোনো ব্যক্তি ভারতীয় নাগরিক হিসাবে গণ্য হতে পারেন, অথবা নাগরিকতা পাওয়ার জন্য আবেদন করতে পারেন। তাছাড়া অনেক ভারতীয় আছেন অন্য দেশের সরকারের থেকে পাসপোর্ট প্রাপ্ত করে সেই দেশের নাগরিকতা অর্জন করেছেন সে ক্ষেত্রে ভারতীয় নাগরিকতা ত্যাগ করতে হয়েছে।

ভারতের নাগরিক হতে গেলে উপরের ঐ সমস্ত বিষয়গুলি অবশ্যই মাথায় রাখা জরুরি এবং এই সমস্ত ডকুমেন্টস অথবা কাগজপত্র গুলো আপনার থাকাটা অবশ্যই বাঞ্ছনীয়। তার সাথে সাথে জন্মের আগে এবং বাবা-মায়ের জন্ম তারিখ সবকিছু নির্ভর করবে এই বিষয়ের উপর।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *