Durga Puja 2023: আপনার ভাগ্য ফেরাতে দুর্গাপূজার আগে ঘরে আনুন এই ৫ টি জিনিস

দুর্গাপূজা তো চলেই এল, মা চলে এসেছেন বাপের বাড়িতে, তার আরাধনায় মেতে উঠবে সমগ্র বাঙালি। দুর্গাপুজোর এই শুভ তিথিতে জীবনে এক শুভ সূচনার প্রকাশ ঘটা, তার সাথে সাথে আর্থিক উন্নতি, মনে প্রশান্তি, সংসারে সমৃদ্ধি, সব কিছু নিয়েই যেন মা বাপের বাড়িতে আগমন করেন। সকলের মনের ইচ্ছা পূরণ করতেই যেন তিনি একটা বছর পর আসেন সকলের কাছে।

দেবীর কাছে মনের যত ইচ্ছা রয়েছে সবটুকু জানিয়েও যেন মনে হয়, কিছু বাকি রয়ে গেল না তো ! এই মনের ইচ্ছাগুলো পূরণ করতে এতটাই ব্যাকুল হয়ে ওঠা হয় যে, দেবীর আসার অপেক্ষায় দিন গুনতে থাকা হয় বছরভর। জীবনে সুখ-সমৃদ্ধি এবং টাকা-পয়সার উন্নতি সকলেই চান। কেননা অর্থ অভাবে জীবনে নেমে আসে অনেক বিপদ, এমনকি অনেক স্বপ্ন পূরণ করাও হয়ে ওঠে না।

আপনার ভাগ্য ফেরাতে দুর্গাপূজার আগে ঘরে আনুন এই ৫ টি জিনিস
আপনার ভাগ্য ফেরাতে দুর্গাপূজার আগে ঘরে আনুন এই ৫ টি জিনিস

তবে মনে করা হয় যে, এমন কিছু জিনিস রয়েছে যা এই দুর্গাপুজোর সময় যদি আপনি বাড়িতে আনতে পারেন, তাহলে দেবী দুর্গা খুবই প্রসন্ন হন এবং ভক্তদের সকল মনের ইচ্ছা পূরণ করেন। এমন কোন জিনিস আপনি ঘরে আনতে পারেন, যার ফলে মায়ের সম্পূর্ণ আশীর্বাদ আপনার সংসারে পড়বে !

দূর্গা পূজার সময় এই কাজ গুলি ভুলেও করবেন না, সঠিক পদ্ধতি জানুন

তো চলুন তাহলে জেনে নেওয়া যাক, এমন কয়েকটি জিনিস সম্পর্কে, যেগুলি আপনি ঘরে আনার পর নিজের ভাগ্য ফেরাতে পারেন:

১) সোনা অথবা রুপোর টাকা:

সোনা অথবা রুপোর টাকা
সোনা অথবা রুপোর টাকা

সোনা অথবা রুপোর টাকা অনেকখানি দামি হয়ে থাকে। এটা সকলের জন্য হয়তো সম্ভব হয়ে উঠবে না। তবে নিজের সাধ্যমত চেষ্টা করে দেখতে পারেন। কথায় আছে কোন শুভ ধাতু কেনার ফলে সংসারে উন্নতি আসে। যেমন ধরুন সোনা হোক অথবা রুপা।

দুর্গাপুজোর সময় যদি আপনি সোনা অথবা রুপোর মুদ্রা বাড়িতে আনেন, তাহলে তার সাথে সাথে আপনার ঘরে শুভ শক্তিরও প্রবেশ ঘটে। যদি আপনি একান্তই সোনার মুদ্রা না কিনতে পারেন, তবে রুপোর মুদ্রা আপনার সাধ্যমত নিতেই পারেন সংসারের উন্নতির জন্য।

এই সমস্ত মুদ্রায় দেবী লক্ষ্মী অথবা ভগবান গণেশের ছবি থাকলে তো আর কথাই নেই। এছাড়া যদি আপনার পার্স অথবা মানিব্যাগে একটি সোনা অথবা রুপোর মুদ্রা রাখতে পারেন। তাতেও কিন্তু মা লক্ষ্মীর আশীর্বাদ সর্বদাই আপনার সাথে সাথেই থাকবে।

দুর্গাপূজার দিন গুলিতে কোন দিন কোন পোশাক পরবেন? চলুন জানা যাক

২) মহিলাদের ষোলো শৃঙ্গার:

মহিলাদের ষোলো শৃঙ্গার
মহিলাদের ষোলো শৃঙ্গার

প্রতিটি হিন্দু ধর্মাবলম্বী দের ঘরে রয়েছে ঠাকুরঘর। সেখানে দেব-দেবীদের আরাধনা করা হয়। তবে এই দুর্গাপুজোর সময় মহিলাদের ক্ষেত্রে এটি বিশেষভাবে প্রযোজ্য, তারা যেন বাড়িতে ষোলো শৃঙ্গার উপকরণ নিয়ে আসেন।

আর এটা উচিত বলেও মনে করা হয়। বাড়ির ঠাকুর ঘরে এগুলি স্থাপন করলে মা দুর্গার অশেষ কৃপা সর্বদাই বাড়িতে বিরাজ করে। এর ফলে আপনার সংসারে সর্বদাই বজায় থাকবে সুখ, শান্তি আর সমৃদ্ধি।

৩) পদ্মফুলে উপবিষ্ট লক্ষ্মী দেবীর মূর্তি বা ছবি:

পদ্মফুলে উপবিষ্ট লক্ষ্মী দেবীর মূর্তি
পদ্মফুলে উপবিষ্ট লক্ষ্মী দেবীর মূর্তি

আমরা বেশিরভাগ সময় দেখে থাকি যে, কোন চিত্রপটে দেবী লক্ষ্মী পদ্মফুলের উপরে অধিষ্ঠিত রয়েছেন। এমন ছবি অনেকেই দেখেছেন, ঘরে ধন-সম্পদ ও সমৃদ্ধি যদি আনতে চান, তাহলে দুর্গাপূজার সময় দেবীর লক্ষ্মীর এমন একটি ছবি বাড়িতে আনুন।

যে ছবিতে তিনি পদ্ম ফুলের উপরে উপবিষ্ট রয়েছেন এবং তার হাত থেকে টাকার বর্ষণ হচ্ছে। পদ্মফুল দেবী লক্ষ্মীর সবচেয়ে প্রিয় ফুল, আর এই ধরনের ছবি আপনার ঘরে থাকলে আপনার সংসারেও ধন-সম্পদ এর বর্ষণ হবে, এটা ধারণা করা হয়।

দুর্গাপূজা উপলক্ষে আপনার ও পূজার ঘরটিকে সাজান এই পদ্ধতিতে

৪) ময়ূরের পালক:

ময়ূরের পালক
ময়ূরের পালক

ময়ূরের পালক খুবই সুন্দর দেখতে, আর সকলের পছন্দেরও। যেমন ঘর সাজানোর কাজে ব্যবহৃত হয়, তেমনি চোখে পড়লে তার থেকে সহজেই চোখ ফেরানো যায় না, তবে শাস্ত্রে ময়ূরের পালক অত্যন্ত শুভ বলে মনে করা হয়। বেশিরভাগ ঘরে শুধুমাত্র ঘর সাজানোর উপলক্ষে এমন ময়ূরের পালক রেখে থাকেন তারা।

তবে এই দুর্গাপূজার সময় দেবী সরস্বতীর প্রিয় ময়ূরের পালক যদি বাড়িতে এনে ঠাকুর ঘরে রাখা যায়, তাহলে অনেক উপকার পাওয়া যায়। এছাড়াও যারা শিক্ষার্থী রয়েছেন, তাদের ঘরে অর্থাৎ সেই শিক্ষার্থীদের ঘরে ময়ূরের পালক রাখলেও পড়াশোনায় উন্নতি ঘটে। আর ছোটবেলার সেই বইয়ের পাতার মধ্যে ময়ূরের পালক রাখার কথা নিশ্চয়ই ভোলার নয়।

তাছাড়া যেখানে আপনি আপনার টাকা পয়সা, সোনার গয়না যে সমস্ত লকারে রাখেন সেই লকারের কাছে ময়ূরের পালক রাখলে আর্থিক অবস্থার উন্নতি ঘটে, আর এই ময়ূরের পালক কিন্তু নেতিবাচক শক্তি কে দূর করে ইতিবাচক শক্তির জন্ম দেয়। বলা যেতে পারে আপনার সংসারে সমস্ত নেতিবাচক শক্তি থেকে আপনাদের সকলকে রক্ষা করবে।

এই গাছগুলি দেবীপক্ষের মধ্যে বাড়িতে লাগান মা দুর্গা সকল দুঃখ বিনাশ করবেন

৫) কলা গাছ:

কলা গাছ
কলা গাছ

কলা গাছ কতটা শুভ সেটা কি আর নতুন করে আপনাদের বলতে হবে, নিশ্চয়ই নয়। ঘর উদ্বোধন থেকে শুরু করে ছোট্ট কোন শুভ অনুষ্ঠান, কলা গাছ দিয়ে সারা ঘর কে না সাজালে, ঘরের চার কোণে যদি কলাগাছ না দেওয়া হয়, তাহলে যেন পূজা বাড়ি বলে মনেই হয় না, তাই না ! শুধুমাত্র মনে হওয়ার জন্য নয়, এটা প্রয়োজন পড়েই আর সেই ক্ষেত্রে কলা গাছ কিন্তু আপনার বাড়ির জন্য অনেকখানি শুভ।

দুর্গাপূজা করুন এই নিয়মে আপনার উপর প্রসন্ন হবেন দুর্গতিনাশিনী

তাই দুর্গাপূজার সময় যদি ঘরে কলা গাছ আনা হয়, সেই সময় কিন্তু সংসারে অনেকখানি উন্নতি ঘটে। আর এটা উচিত বলেও মনে করা হয়। এটি বাড়ির উঠোনে রাখুন এবং পুজো করার পরে সেটির উপরে দুধ নিবেদন করুন। এর ফলে আপনার সংসারের সমস্ত আর্থিক সমস্যা দূর হয়ে যাবে।

যে পাঁচটি জিনিসের কথা এখানে আলোচনা করা হলো, সেগুলি খুবই সামান্য মনে হলেও এগুলো কিন্তু আপনার জীবনকে অনেকখানি পরিবর্তন করে দেবে। সেটা আপনি হাতে নাতেই বুঝতে পারবেন।

সন্তানদের পড়াশোনা, তাদের উজ্জ্বল ভবিষ্যৎ, সংসারে আয়, উন্নতি সব কিছুর দিকে চিন্তা করেই অনেকেই এই শুভ নিয়ম কানুন গুলি মেনে আসছেন বহু বছর আগে থেকে । এমন শুভ উৎসবে, শুভ তিথিতে, নিজের জীবনকে আরো সমৃদ্ধিতে ভরিয়ে তুলতে সারা বছর যাতে সংসারে দেবীর আশীর্বাদ বজায় থাকে, এক্ষেত্রে এমনটা করা যেতেই পারে, কি বলেন !

Leave a Comment